Other

ঋতু পরিবর্তনে অসুস্থ হয় কেন ও সুস্থতার উপায়

প্রতি ঋতু পরিবর্তনে অসুস্থ হয় কেন? এই প্রশ্নটি সচারাচর অনেকেই করে থাকেন। কিন্তু অনলাইনে এ সম্পর্কে তেমন তথ্য অনুসন্ধান করে পান না। ঋতু পরিবর্তনের সময় অসুস্থ হওয়ার বেশ কয়েকটি কারণ রয়েছে। এ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো:

ঋতু পরিবর্তনে অসুস্থ হয় কেন?

বিশেষজ্ঞদের মতে ঋতু পরিবর্তনের সময় কিছু মানুষ রয়েছে তারা মূলত মানিয়ে নিতে পারে না তাপমাত্রার সাথে। তবে তাপমাত্রা কমলে বা বাড়লে অসুস্থ হবে এমনটা নয়। কিছু কারনে ঋতু পরিবর্তনপর সময় অসুস্থ হয় বাতাসের আদ্রতার পরিবর্তন, শরীরের তাপমাত্রার পরিবর্তন, বাসস্থান পরিবর্তন, স্বাস্থ্যকর পরিবেশের পরিবর্তন ও ইত্যাদি কারনে। আসুন এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানি। 

প্রতি ঋতু পরিবর্তনে অসুস্থ হয় কেন

বাতাসে আর্দ্রতা পরিবর্তন

ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে বাতাসের আদ্রতার পরিবর্তন হয়ে থাকে। হঠাৎ করে বদলে যাওয়া বাতাসের আদ্রতার কারনে অনেকে মানিয়ে নিতে পারেন না। এসময় ঠান্ডা, জ্বর বেশি লক্ষ্য করা যায়।

শরীরের তাপমাত্রা পরিবর্তন

ঋতু পরিবর্তন হলে অবশ্যই তাপমাত্রা পরিবর্তন হবে। আর এই তাপমাত্রা অনেকের শরীরে মানিয়ে নিতে পারে না। আর এই সময়টিতে মূলত অনেকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা  দূর্বল হয়ে থাকে যার কারনে সে অসুস্থ হয়ে যায়।

স্বাস্থ্যকর অভ্যাস পরিবর্তন

অনেকেই আছেন যারা ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে নিজেদের অভ্যাস দ্রুত পরিবর্তন করে থাকে। উদাহরণ সরূপ ধরুন, ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে আপনি ব্যায়াম বাদ দিলেন, শাকসবজি ও ফলমূল খাওয়া বাদ দিলেন এতে আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে আসে। 

বাসস্থানের পরিবর্তন

আমরা অনেকেই দেখি যে ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে বাসস্থানের পরিবর্তন করেন। এতে একটি স্থানে দীর্ঘদিন থাকার পর অন্য স্থানে যাওয়া এটি খাপ খাইয়ে নিতে আমাদের দেহের সময় লাগে। এসময় অনেকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে। 

See also  শীতকালীন ফুলের নামের তালিকা

ঋতু পরিবর্তনের সময় যেসব রোগ বেশি দেখা যায় সেগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • সর্দি-কাশি
  • ফ্লু: 
  • ব্রংকাইটিস
  • নিউমোনিয়া
  • এলার্জি

ঋতু পরিবর্তনের সময় সুস্থ থাকার টিপস

ঋতু পরিবর্তনের সময় অসুস্থতা এড়াতে নিম্নলিখিত টিপসগুলি অনুসরণ করতে পারেন:

  1. স্বাস্থ্যকর খাবার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে থাকে সেহেতু আপনাকে স্বাস্থ্যকর খাবার খাবার আপনার খাবার তালিকায় রাখতে হবে। আর ফাস্টফুড জাতীশ খাবার আপানাকে আবাট খাবার তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে। 
  2. আপনাকে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমাতে হবে। আপনি চেষ্টা করবেন রাত ১১টার সময়ে ঘুমাতে যাবার ও সকাল ৬টায় কিংবা ৭টায় ঘুম থেকে ওঠার। 
  3. প্রতিদিন সকালে আপনাকে ব্যায়াম করতে হবে ।
  4. পর্যাপ্ত পানি পান শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে সাহায্য করে। আপনাকে প্রতিদিন  দুই থেকে তিন লিটার  পানি পান করতে হবে। সেটি যেকোনো ঋতু হতে হোক না কেন । পানি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। 
  5. পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকুন। সপ্তাহে অন্তত দুই দিন সাবান ব্যবহার করুন আপনার শরীরে। বাইরে থেকে বাড়িতে আসার পর হাত পা ধুয়ে নিতে হবে। সম্ভব হলে গোসল করুন। 

যদি আপনি ঋতু পরিবর্তনের সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন তবে প্রচুর পরিমাণে স্বাস্থ্যকর খাবার ও পানি পান করুন, বিশ্রাম নিন এবং আপনার লক্ষণগুলির জন্য ডাক্তারের পরামর্শক্রমে ওষুধ নিন। 

আরো পড়তে পারেন:

(প্রতিনিয়ত নতুন নতুন আপডেট পেতে আমাদের গুগল নিউজ ও ফেসবুক পেজ এ অনুসরণ করুন)

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button